Breaking News
Home / Cricket / আবারো প্রশ্নবিদ্ধ মুস্তাফিজ!

আবারো প্রশ্নবিদ্ধ মুস্তাফিজ!

মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে মাঠে নেমেছিল দিল্লি আর মুম্বাই। এর আগে দু’দলই খেলেছিলো দুই ম্যাচ। তবে জিততে পারেনি কোনো দল।


বিকেলে ওয়াংখেড়েতে টস জিতে দিল্লি অধিপতি গৌতম গাম্ভীর ব্যাটিংয়ে পাঠায় স্বাগতিকদের। ঘুরে দাঁড়ানোর ম্যাচে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ক্রিকেট খেলেছে মুম্বাইয়ের ব্যাটসম্যানরা। ওপেনিং জুটি ভাঙতেই অনেক পরীক্ষা দিতে হয়েছে দিল্লির বোলারদের। ৮.২ ওভারের সময় ১০২ রানের জুটি ভাঙে এভিন লুইসের লেগ বিফোরের মাধ্যমে। লুইস করেন ২৮ বলে সমান ৪ বাউন্ডারি আর ওভার-বাউন্ডারিতে ৪৮ রান।



আরেক ওপেনার সুরিয়া কুমার যাদব আউট হন ৩২ বলে ৫৩ রান করে। এরপর ঈশান কিষাণ করেন ২৩ বলে ৪৪ রান। রোহিত শর্মার ব্যাটে আসে ১৫ বলে ১৮ রান। শুরুতে উইকেট খোয়াতে দিল্লির বোলারদের কষ্ট হলেও শেষদিকে ট্রেন্ট বোল্ট, রাহুল তেউটিয়াদের বোলিং দৃঢ়তায় দুশো রানের নিচেই আটকায় মুম্বাইকে। ২০ ওভার শেষে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৯৪ রান সংগ্রহ করে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স।



বড় লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দিল্লির দুই ওপেনার ঝড় তোলার আগেই মাত্র ১৫ রানে গৌতম গাম্ভীরকে থামিয়ে দেন মুস্তাফিজুর রহমান। মুস্তাফিজের বোলিং মুম্বাইকে জয়ের স্বপ্ন দেখালেও অন্য বোলাররা দাঁড়াতেই পারেনি আরেক ওপেনার জেসন রয়ের সামনে।



টপ অর্ডারে ঋষাব প্যান্টের করা ২৫ বলে ৪৭ রান চাপে ফেলে দেয় মুম্বাইকে। মুস্তাফিজের করা ১৭তম ওভারে আসে মাত্র ৮ রান। তখনও জয়ের জন্য দিল্লির দরকার ১২ বলে ১৬ রান। ১৮তম ওভারে ভুমরাহ দিলেন ৫ রান।



শেষ ওভারে জিততে হলে দিল্লির প্রয়োজন ১১ রান। বোলিংয়ে মুস্তাফিজ, স্ট্রাইক প্রান্তে ইনফর্মে থাকা জেসন রয়। প্রথম বলেই ব্যাকওয়ার্ড পয়েন্ট দিয়ে চারের মার। ৫ বলে প্রয়োজন ৭ রান। ওভারের দ্বিতীয় বলেই ফাইন লেগ এর উপর দিয়ে ৬। ম্যাচটা পরের বলেই শেষ হতে পারতো। তবে মুস্তাফিজ বলেই হয়তো শেষ বল পর্যন্ত দেখতে হলো। টানা তিন বল ব্যাটেই লাগাতে পারেনি জেসন রয়। শেষ বলে এক রান নিয়ে ৭ উইকেট হারিয়ে চলতি মৌসুমের প্রথম জয় তুলে নেয় দিল্লি ডেয়ারডেভিলস।



মুম্বাইয়ের হয়ে হার্দিক পান্ডিয়া নেন ২ উইকেট। মুস্তাফিজ নেন ২৫ রান খরচায় ১ উইকেট। ম্যাচ সেরার পুরস্কার ওঠে ৫৩ বলে ৯১ রানে অপরাজিত থাকা জেসন রয়ের হাতেই।

Check Also

সুখবরঃ বিসিবির নতুন নিয়মে সুযোগ পাচ্ছেন তারা, তালিকার শীর্ষে আছেন আশরাফুল। ২য় শাহরিয়ার নাফিস। পড়ুন বিস্তারিত

ফ্র্যাঞ্চাইজি ভিত্তিক বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং গুরুত্বপূর্ণ টুর্নামেন্ট বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ বিপিএল। প্রতিবছরই বিপিএল শুরু …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: